আপনি ব্যবসায়িক বা ব্যাক্তিগত প্রয়োজনে ট্রাক খুঁজছেন? অথবা আপনার ট্রাকের জন্য ট্রিপ দরকার?

ট্রাক সংক্রান্ত সব সমস্যা সমাধানে জিম আছে আপনার পাশে। 

ট্রিপ চাইলে জিম, ট্রাক চাইলে জিম

জিম গ্রাহক ও পার্টনারদের সাথে আরো দৃঢ় অবস্থান তৈরি করার লক্ষ্যে নতুন বছরে “ট্রিপ চাইলে জিম, ট্রাক চাইলে জিম” – এই স্লোগান নিয়ে নতুন উদ্যমে কাজ শুরু করছে।

ট্রাক ভাড়া দেওয়া এবং নেওয়ার অনলাইন প্লাটফর্ম, জিমে যে কোন সময় যে কোন স্থান থেকে ট্রাক ভাড়া করা যায়।

আসুন দেখে নেই জিম কিভাবে কাজ করে।

কাস্টমার জিম অ্যাপে কি পণ্য এবং কি ধরণের ট্রাক চাই তা লিখে ট্রিপ তৈরি করার সাথে সাথে জিম পার্টনার অ্যাপের মাধ্যমে জিমে রেজিস্টারকৃত সকল পার্টনারদের কাছে (ট্রাক ও ট্রান্সপোর্ট এজেন্সি মালিক) ট্রিপের তথ্য পৌঁছে যায়। পার্টনাররা ট্রিপের বিস্তারিত দেখে ট্রিপটি পছন্দ হলে ট্রিপের জন্য বিড করেন। একাধিক পার্টনারের বিড থেকে কাস্টমার তার পছন্দ অনুযায়ী বিডটি সিলেক্ট করেন।পার্টনার ট্রিপ সম্পন্ন করে চালান জমা দিয়ে দ্রুততম সময়ের মাঝে জিম থেকে তার পেমেন্ট বুঝে নেন। অনলাইন বিডিং এর মাধ্যমে ভাড়া নির্ধারিত হওয়ায় জিমে আছে বাজারের সেরা দর পাওয়ার নিশ্চয়তা।

জিমে খোলা ট্রাক, কাভার্ড ভ্যান, পিকআপসহ বাংলাদেশে প্রচলিত সব ধরণের ট্রাক আছে। জিমে বর্তমানে রেজিস্টারকৃত ট্রাকের সংখ্যা ১৮,৯৭১। জিমে রেজিস্টারকৃত সকল পার্টনার এবং গ্রাহক ভেরিফাইড হওয়ায় জিমে পণ্য পরিবহন নিরাপদ।

২ লক্ষ টনেরও বেশি ধারণক্ষমতা নিয়ে জিম বাংলাদেশের পরিবহন খাততে প্রযুক্তির মাধ্যমে আধুনিকায়নের লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।