একটি বড় নির্মাণ কোম্পানি বা আমদানিকারক কোম্পানির লজিস্টিক/ট্রান্সপোর্ট ম্যানেজার ট্রাক ভাড়া করতে গিয়ে নানা ধরণের সমস্যায় পড়ে থাকেন। যেমন ধরুন, রফিক সাহেব একটি গাড়ি আমদানিকারক কোম্পানির লজিস্টিক ম্যানেজার। আমদানিকৃত গাড়ি বাংলাদেশের এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে পাঠানো হবে। কিন্তু ১৫-২০ টি ট্রাক দ্রুত সময়ে ভাড়া পাওয়া সহজ না। অনেক সময় ৫-৬ টি ট্রান্সপোর্ট এজেন্সিতে ফোন দিয়েও ২০টা ট্রাক পাওয়া যায় না। 

আবার ধরুন একটি সিমেন্ট উৎপাদনকারি প্রতিষ্ঠানের দৈনিক ৩০০-৪০০ টি ট্রাক প্রয়োজন হয়। লজিস্টিক ম্যানেজারের জন্য এতোগুলো ট্রাক জোগাড় করতে কতোগুলো ট্রান্সপোর্ট এজেন্সির সাথে যোগাযোগ করতে হয় একবার ভাবুন তো!   

একজন লজিস্টিক ম্যানেজারের অসংখ্য সমস্যার মাঝে এখানে মাত্র দুটো চিত্র তুলে ধরা হলো। এবার আসুন আরও কিছু জটিল সমস্যা সম্পর্কে জানি। 

সঠিক সময়ে ট্রাক না পাওয়া

বেশিরভাগ ক্ষেত্রে ট্রাক সময়মতো পাওয়া যায় না। এজেন্সিতে ফোন দিলে বলে, ট্রাক মেরামত করতে দিয়েছে কিংবা ট্রাক অন্য ট্রিপে চলে গেছে। এসব ক্ষেত্রে আপনাকে আরও ৫ জায়গায় ফোন দিতে হয়। কিছু ক্ষেত্রে দেখা যায় ট্রাক পাওয়া যায় এক বা দু’দিন পরে। ফলে পণ্য পরিবহন সঠিক সময়ে হয় না। 

ড্রাইভার নেই! 

আমাদের দেশসহ সারা বিশ্বে এই সমস্যা বেশ প্রকট। অনেক সময় এজেন্সিতে বা ট্রাক মালিককে ফোন দিলে জানায়, ড্রাইভার নেই কিংবা কাল সকালে ড্রাইভার আসবে, আজকে নেই। এই ধরণের কথা একজন লজিস্টিক ম্যানেজারকে প্রায়ই শুনতে হয় যা তাকে বিপাকে ফেলে দেয়। 

যোগাযোগ জটিলতা

আমাদের দেশে প্রায়ই দেখা যায়, পোর্টে জটিলতা সৃষ্টি হয়েছে। কোন কারণ ছাড়াই পণ্য লোড-আনলোড বন্ধ। আবার দেখা যায় বিশেষ কোন দিন বা উৎসবকে সামনে রেখে কোন পূর্ববর্তী ঘোষণা ছাড়াই পণ্যবাহী ট্রাককে ফেরী পার হতে দেওয়া হচ্ছে না। এসব ক্ষেত্রে ট্রাক ড্রাইভাররা বেশ বিপাকে পড়ে যায় এবং তৎক্ষণাৎ কি করবে বুঝে উঠতে পারে না। কিছুদিন আগেই পূজার ছুটিতে ২দিন মাওয়া ফেরীঘাটে ট্রাক পারাপার বন্ধ ছিল। দু’দিন ধরে ট্রাক ঘাটে আটকে ছিল। 

কাস্টমার সার্ভিস 

কাস্টমার বা গ্রাহক সাধারণত পণ্য সঠিক সময়ে ডেলিভারি আশা করে থাকেন। কর্পোরেট ক্ষেত্রেও ব্যাপারটা একই রকম। অর্ডার ছোট কিংবা বড় হোক, ডেলিভারি কিন্তু দেরি হলে সবাই বিরক্ত হয়। তাই পণ্য পরিবহনের ক্ষেত্রে সঠিক সময়ে ডেলিভারি নিশ্চিত করা জরুরী। পণ্য ডেলিভারি সঠিক সময়ে না হলে, সেই সমস্যাটি বিভিন্ন ডিপার্টমেন্টের শাখা-প্রশাখা ঘুরে আবার সেই লজিস্টিক ম্যানেজারের ঘাড়েই চলে আসে। 

এরকম আরও কিছু সমস্যার মুখোমুখি হতে হয় একজন লজিস্টিক ম্যানেজারকে, যা প্রায়ই তার কাজটিকে কঠিন করে তোলে। 

আরও কিছু সমস্যা ও বর্তমান সময়ে সবচেয়ে কার্যকরী সমাধান কি তা আগামী পর্বে বিস্তারিত আসছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।