পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতের ট্রাক মালিক সমিতি ও ট্রান্সপোর্ট মালিক সমিতির হঠাৎ ডাকা এক ধর্মঘটের কারণে বেনাপোল বন্দর দিয়ে আমদানি ও রপ্তানি বাণিজ্য বন্ধ রয়েছে।

বেনাপোল শুল্কভবনের কার্গো শাখার রাজস্ব কর্মকর্তা জনাব কামরুজ্জামান জানান, আজ মঙ্গলবার, ৩০শে জুলাই সকাল ৬টা থেকে দু’দেশের মধ্যে আমদানি ও রপ্তানি বন্ধ রয়েছে।

মালিক সমিতি অভিযোগ করেছে বেনাপোল স্থলবন্দরে কর্মরত নাইট গার্ড, হ্যান্ডলিং শ্রমিক ও সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট কিছু কর্মচারীরা বেনাপোল স্থলবন্দরে ভারতীয় ট্রাকচালকদের কাছ থেকে অতিরিক্ত বকশিস আদায় করছে। ফলে তারা নিয়মিত হয়রানির শিকার হচ্ছে। তাই এর প্রতিবাদে ও প্রতিকারের দাবিতে স্থলবন্দর দিয়ে আমদানি কার্যক্রম বন্ধ রেখেছেন তারা।

বেনাপোল বন্দর দিয়ে আমদানি ও রপ্তানি বাণিজ্য বন্ধ

ভারতীয় এক ট্রাক চালক শ্যামল চক্রবর্তী জানান, “আমদানি পণ্য নিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশের পর বেনাপোল বন্দরে বিভিন্ন সংগঠনের কাছে নানা ভাবে হয়রানি হতে হয়। বকশিসের নামে তাদের কাছ থেকে জোর করে টাকা আদায় করা হয়।” তাই এসব সমস্যা সমাধান না হলে কোনো পণ্যবাহী ট্রাক বাংলাদেশে যাবে না বলে বাংলাদেশি ব্যবসায়ীদের জানিয়ে দেওয়া হয়েছে তাদের পক্ষ থেকে। 

বেনাপোল ক্লিয়ারিং এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জামাল হোসেনের কাছে এই বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে তিনি  বলেন, “কিছু কিছু স্টাফ আছে যারা অনেক সময় ভারতীয় ট্রাক চালকদের সঙ্গে অনৈতিক আচরণ করে থাকেন।” 

তিনি আরও জানান, এ বিষয়ে পেট্রাপোল স্থলবন্দরের ট্রাক মালিক সমিতি ও ট্রান্সপোর্ট মালিক সমিতির সঙ্গে আলোচনা করতে তাদের একটি দল ইতোমধ্যে ভারতে গেছে। আশা করা যাচ্ছে খুব দ্রুতই এই সমস্যার  সমাধান হবে। 

তথ্যসূত্রঃ বাংলানিউজ২৪.কম ও বিডিনিউজ২৪.কম

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।