গতকাল রাতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামালের সঙ্গে জরুরী বৈঠকে দাবি পূরণের আশ্বাস পাওয়ার পর ধর্মঘট প্রত্যাহার করেছেন ট্রাক ও কভার্ডভ্যান মালিক-শ্রমিকরা।

ধানমণ্ডিতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বাড়িতে গতকাল রাতে প্রায় চার ঘণ্টার বৈঠকের পর ধর্মঘট প্রত্যাহারের ঘোষণা আসে।  মধ্যরাতে বৈঠক শেষে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান কামাল সাংবাদিকদের বলেন, পরিবহন মালিক-শ্রমিকরা যে নয়টি দাবি তুলেছেন, তা বিবেচনা করে দেখা হবে। 

নয়টি দাবির মধ্যে যেসব দাবিগুলো যৌক্তিক মনে হবে, সেগুলো বিবেচনার আশ্বাস দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও, যে লাইসেন্স দিয়ে তাঁরা এখনো গাড়ি চালাচ্ছেন, তা আগামী বছরের ৩০ জুন পর্যন্ত বহাল থাকবে। এই সময়ের মধ্যে যথাযথ প্রক্রিয়া মেনে কাগজপত্র হালনাগাদ করবেন সবাই। 

দাবিগুলো সম্পর্কে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, যে লাইসেন্স দিয়ে তারা বর্তমানে গাড়ি চালাচ্ছেন তার অনেকগুলো বিআরটিএ সময়মত দিতে পারেনি। অর্থাৎ বিভিন্ন ধরনের ড্রাইভিং লাইসেন্সের আবেদন বা নবায়নের জন্য তাদের আবেদনের প্রেক্ষিতে বিআরটিএ নির্দিষ্ট সময়মত তা দিতে পারেনি। ফলে তারা যথাযথ ড্রাইভিং লাইসেন্স ছাড়াই রাস্তায় গাড়ি চালাচ্ছে। এক্ষেত্রে তারা লাইসেন্সগুলো ঠিক করতে আগামী বছরের ৩০ জুন পর্যন্ত সময় চেয়েছেন। আমরা তা মেনে নিয়েছি।

বাংলাদেশ ট্রাক মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক এবং মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদের আহবায়ক জনাব রুস্তম আলী খান বলেন, “আমাদের সমস্যাগুলো শুনে দাবিগুলো নীতিগতভাবে সরকার মেনে নিয়েছে।”

ধর্মঘট প্রত্যাহারের ঘোষণা দিয়ে তিনি বলেন, “এখন কাগজপত্র ছাড়া কোনো গাড়ি রাস্তায় চলে না। তবে কিছু গাড়ির কাগজপত্র ঠিক নাই। সেগুলো কিন্তু বসে আছে। জরিমানার অঙ্ক বেশি হওয়ার কারণে অনেকেই হালনাগাদ করতে পারেনি। আমরা জরিমানা মওকুফের দাবি জানাচ্ছি।” 

ট্রাক ড্রাইভার ইউনিয়নের সভাপতি জনাব মো. মনির জানান, ধর্মঘটের কোনো সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনা তাদের ছিল না। কিন্তু কোনো আালোচনা না করেই সাধারণ শ্রমিকরা এই ধর্মঘট ডেকে বসে।

মালিক ও শ্রমিকদের আরেক নেতা জনাব তালুকদার মোহাম্মদ মনির বলেন, আমরা কোনোভাবেই কর্মবিরতির পক্ষে না। আমাদের অনুমতি ছাড়াই শ্রমিকরা গাড়ি চালানো বন্ধ করে দিয়েছে। তাই তাদের থামানোর উদ্দেশেই আমরা কর্মবিরতি ঘোষণা করেছিলাম।

আজ সকাল থেকে যান চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে। আশা করা যাচ্ছে এই সমস্যা দ্রুত নিরসন হবে এবং পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকবে। 


তথ্যসূত্রঃ বিডিনিউজ২৪.কম, দৈনিক প্রথম আলো এবং বাংলানিউজ২৪.কম

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।