টানা বন্ধ থাকার পর, অবশেষে ১টি ফেরি দিয়ে শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি নৌরুটে পণ্যবাহী ট্রাক পারাপার করানো হচ্ছে।  

বিগত কয়েকদিন ধরেই শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি নৌরুটে ফেরি সার্ভিস বন্ধ রয়েছে। ফলে সাধারণ মানুষদের অনেক বেশি দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। নাব্য সঙ্কটের কারণে, এই নৌপথ দিয়ে ৯ দিনের মত ফেরি চলাচল বন্ধ থাকার পর, গত ১০ই সেপ্টেম্বর অত্যন্ত সীমিত আকারে আবার ফেরি চালাচল শুরু হয়। কিন্তু দুঃখজনকভাবে দুই দিন না যেতেই কর্তৃপক্ষ ফেরি সার্ভিস পুনরায় অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করেন।

বিআইডব্লিউটিসির এজিএম মো. শফিকুল ইসলামের মাধ্যমে জানা গিয়েছে, “পালের চর-খেজুরতলা-নড়িয়া চ্যানেল দিয়ে ২৮ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে ফেরি চলাচল করছে। বর্তমানে পরিস্থিতিতে শুধুমাত্র একটি ফেরি চালানো হচ্ছে এবং এটি গন্তব্যে পৌছাতে ৫/৬ ঘণ্টা সময় লাগছে; আর অন্যদিকে ফিরে আসতে সময় লাগছে আরও বেশি।”

শফিকুল সাহেব আরও বলেন, “নতুন চ্যানেলে ফেরি চালু হলেও লাঘব হচ্ছে না লোকজনের দুর্ভোগ। একটি ফেরি দিয়ে পণ্যবাহী ট্রাক পারাপার করানো হচ্ছে। ফলে এই ফেরি চলাচলে সাধারণ মানুষের কাজে আসছে না।” 

আরও জানা যায়, “পুরানো কবুতর খোলা চ্যানেলের পূর্ব পাশ দিয়ে এক কিলোমিটার চর কেটে নতুন একটি স্থায়ী চন্দ্রার চর নামে চ্যানেল তৈরির চেষ্টা করা হচ্ছে। এই চরটি পদ্মা সেতুর অন্তর্ভুক্ত। সেতু কর্তৃপক্ষের অনুমতি নিয়েই চরটি বুধবার থেকে কাটা শুরু করার কথা রয়েছে।”

চলমান এই জটিলতার মাঝে আশার কথা হচ্ছে, ট্রাক পারাপার চালু হয়েছে। ফলে পণ্য পরিবহনের চাকা সচল থাকবে।  

তথ্যসূত্রঃ বিডিনিউজ২৪.কম 

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।