চলতি সপ্তাহে সৌদি আরবের জেদ্দায় বেসরকারী বিনিয়োগকারীদের জন্য একটি নতুন লজিস্টিক জোন চালু হয়েছে। শুধুমাত্র তেল ব্যবসায় আটকে না থেকে অর্থনীতিতে ভিন্নতা আনতে এবং সৌদিবাসীদের জন্য নতুন কর্মসংস্থান সৃষ্টির লক্ষে এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। 

এই লজিস্টিক জোন শিপিং ও মালবাহী যান আনলোডে সহযোগিতার পাশাপাশি পণ্য পরিবহনের অগ্রণী ভূমিকা পালন করবে। জেদ্দাতে ২.৩ মিলিয়ন বর্গমিটারের বেশি যায়গা নিয়ে তৈরি এই জোন বর্তমানে সৌদির অন্যতম বড় বন্দর। 

সৌদির পরিবহনমন্ত্রী নাবিল আল আমুদি জানান, “দেশের বৃহত্তম লজিস্টিক জোন হিসাবে এটি সৌদি আরবকে একটি বৈশ্বিক লজিস্টিক হাবে পরিণত করবে। যার ফলে প্রায় দশ হাজার কর্মসংস্থান তৈরি হবে বলে তিনি আশাবাদী। 

সৌদির চলমান অর্থনৈতিক প্রক্রিয়া সংস্কারের জন্য যুগোপযোগী এই প্রজেক্ট নিয়ন্ত্রন করবে বেসরকারী খাত। তারা  বিমানবন্দর ও সমুদ্র বন্দরসহ পরিবহনের বেশিরভাগ অবকাঠামো পরিচালনা করবে এবং সৌদি সরকার এক্ষেত্রে নিয়ন্ত্রকের ভূমিকা পালন করবে। 

এই লজিস্টিক জোনে বিনিয়োগকারীদের জন্য সরকার কি ধরণের প্রস্তাব দিচ্ছে তার বিস্তারিত বিবরণ এখনো প্রকাশ করা হয়নি। তবে সৌদি বন্দর কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে যে, এই অঞ্চলটি ইজারা ভিত্তিতে বিনিয়োগকারীদের জন্য সুযোগ সুবিধা প্রদান করবে। 

এক দশকেরও বেশি আগে, সৌদি সরকার অর্থনীতিতে সাফল্য আনতে বেশকিছু প্রজেক্ট নিয়ে কাজ করে। সেখানে তরুণদের জন্য কর্মসংস্থান তৈরি করতে এবং বৈদেশিক বিনিয়োগ আকৃষ্ট করতে পুরো দেশ জুড়ে ছয়টি অর্থনৈতিক শহর গড়ে তুলতে 30 বিলিয়ন ডলার ব্যয় করে। যদিও অনেকগুলি প্রকল্প পরবর্তীতে প্রত্যাশিত ফলাফল অর্জন করতে ব্যর্থ হয়েছে। 

গত কয়েক দশক ধরে বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পে ব্যয়ের পর, সৌদি সরকার বৃহত্তর বিদেশী বিনিয়োগকে আকৃষ্ট করতে এই পদক্ষেপ নিয়েছে। আশা করা যাচ্ছে, এই প্রকল্প সফল হলে তা সৌদির অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। 

তথ্যসূত্রঃ arabnews.com এবং gdnonline.com 

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।