দেশের সড়ক-পরিবহন আইন সংশোধনসহ নয় দফা দাবিতে ১২ই অক্টোবর থেকে সারাদেশে ৪৮ ঘণ্টার এক পণ্য পরিবহন ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে বাংলাদেশ ট্রাক-কাভার্ড ভ্যান মালিক-শ্রমিক সমন্বয় পরিষদ। 

নতুন সড়ক পরিবহন আইন ২০১৮ সংশোধন ও পরিবহন সেক্টরে চলমান সমস্যা নিরসনের দাবিতে এই ধর্মঘটের ডাক দেওয়া হয়ছে। 

গতকাল, শনিবার বন্দর নগরী চট্টগ্রামের শাহ আমানত সেতু সংলগ্ন রাজবাড়ী কমিউনিটি সেন্টারে বাংলাদেশ ট্রাক-কাভার্ডভ্যান মালিক-শ্রমিক সমন্বয় পরিষদ ও চট্টগ্রাম আঞ্চলিক কমিটির আয়োজিত এক সমন্বয় সভায়, বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক জনাব ওসমান আলী এই ঘোষণা দেন।

জনাব ওসমান আলী বলেন, “মালিক-শ্রমিকদের স্বার্থের কথা বিবেচনা না করে সরকার সড়ক পরিবহন আইন ২০১৮ বাস্তবায়ন করেছে। ফলে সারা দেশের পরিবহন সেক্টরে এক ধরণের নৈরাজ্য চলছে। ৩১শে ডিসেম্বরের মধ্যে এই আইন সংশোধনসহ পরিবহন সেক্টরে নৈরাজ্য ঠেকাতে নয় দফা দাবি দেয়া হয়েছে। এই দাবি আদায়ের অংশ হিসেবে ১২ ও ১৩ অক্টোবর পণ্য পরিবহন ধর্মঘট পালন করা হবে।” 

ওসমান আলী আরও বলেন, “সব পরিবহন মালিক-শ্রমিক সংগঠনকে সঙ্গে নিয়ে এই আন্দোলন আরও বেগবান করা হবে। দাবি আদায়ের জন্য প্রাথমিকভাবে ধাপে ধাপে ৯৬ ঘণ্টা এবং প্রয়োজনে অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘট ডাকা হবে।”  

ট্রাক, কাভার্ড ভ্যান, প্রাইমমুভার, মিনিট্রাক ও লরি না চললে দেশের পরিস্থিতি হবে ভয়াবহ। দেশের বিভিন্ন বন্দর দিয়ে আমদানি-রপ্তানি করা সব ধরনের গার্মেন্টস, খাদ্য ও বিভিন্ন পণ্য পরিবহন বন্ধ হয়ে যাবে। এতে দেশের ব্যবসা পরিস্থিতি বেকায়দায় পড়বে বলে আশংকা করা হচ্ছে। 

সমন্বয় পরিষদের চট্টগ্রাম আঞ্চলিক কমিটির আহ্বায়ক জনাব মো. আবদুল মান্নান সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, “এই কর্মসূচি আগেই ঢাকায় নির্ধারণ করা হয়েছিল। আজ সভায় কেন্দ্রীয় নেতারা যোগ দিয়ে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দিলেন।”

উক্ত সভায় প্রধান বক্তা ছিলেন, বাংলাদেশ ট্রাক-কাভার্ডভ্যান মালিক-শ্রমিক সমন্বয় পরিষদের আহ্বায়ক জনাব রুস্তম আলী। সভায় অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সমন্বয় পরিষদের সদস্য সচিব মো. তাজুল ইসলাম, চট্টগ্রাম জেলা সড়ক পরিবহন মালিক গ্রুপের মহাসচিব গোলাম রসুল, বৃহত্তর চট্টগ্রাম পণ্য পরিবহন মালিক ফেডারেশনের মহাসচিব নুরুল আবছার, বাংলাদেশ ট্রাক ড্রাইভার ইউনিয়নের সভাপতি মনির তালুকদার, নোয়াখালী জেলা ট্রাক শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি আবুল বাহার, চট্টগ্রাম বিভাগীয় সড়ক পরিবহন সমিতির সাধারণ সম্পাদক গোলাম নবী প্রমুখ। 

তথ্যসূত্রঃ বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যম 

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।