আগামী ২৬শে মার্চ বৃহস্পতিবার থেকে ৪ই এপ্রিল শনিবার পর্যন্ত সমগ্র বাংলাদেশের সড়কপথে যাত্রীবাহী যান চলাচল বন্ধ থাকবে। 

সারা বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে বাংলাদেশে সকল ধরণের গণপরিবহন বৃহস্পতিবার থেকে ‘লকডাউন’ অর্থাৎ যাত্রীবাহী যানবাহন চলাচলে নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে। টানা ১০ দিন এই নিষেধাজ্ঞা জারি থাকবে বলে দেশের সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় এক বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে। তবে ট্রাক, কাভার্ডভ্যান, ঔষধ, জরুরি সেবা, জ্বালানি, পচনশীল পণ্য পরিবহন-এ নিষেধাজ্ঞার বাইরে থাকবে। 

এছাড়াও, আজ থেকেই সারাদেশে নৌপথে লঞ্চ, ছোট নৌকাসহ সব ধরণের যাত্রীবাহী নৌযান চলাচল বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। মাননীয় নৌ পরিবহনমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী এ কথা নিশ্চিত করেছেন। খুব সীমিত আকারে আজ ও কাল, যাত্রীবাহী বাস এবং পণ্যবাহী নৌযান চলবে। 

আজ থেকে সারা দেশে স্থানীয় কমিউটার মেইল ট্রেন চলাচল বন্ধ থাকবে। মাননীয় রেলমন্ত্রী নুরুল ইসলাম এক সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন, আজ থেকে যাত্রীবাহী ট্রেন চলাচল বন্ধ থাকবে। পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত এটা সিদ্ধান্ত কার্যকর থাকবে। তবে মালবাহী ট্রেন চলাচল চালু থাকবে বলে জানা গিয়েছে। এছাড়াও আজ থেকে সব ধরণের ট্রেনের টিকেট বিক্রিও বন্ধ রয়েছে। 

দেশের এই পরিস্থিতিতে জরুরি পণ্য পরিবহনে কাজ করছে জিম ডিজিটাল ট্রাক। ফলে ঘরে বসেও জরুরি পণ্য পরিবহনের সেবাটি নিতে পারবেন জিম ডিজিটাল ট্রাক থেকে। যে কোন ধরণের ট্রাকের জন্য যোগাযোগ করতে পারেন এই ০৯৬৭৮১১১৪৪৪ নম্বর এ। জিম কাস্টমার অ্যাপ ডাউনলোড করা যাবে এই লিংকে http://bit.ly/GimCustomerApp ক্লিক করে। 

তথ্যসূত্রঃ বিবিসি সংবাদ  

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।